মেনু নির্বাচন করুন

ট্রাষ্টি বোর্ড গঠন ও কার্যক্রম


ট্রাস্টি বোর্ড গঠনঃ-
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক ট্রাস্টি বোর্ড গঠিত হইবে। প্রয়োজনে সরকার সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি কিংবা হ্রাস ও রদ বদল করিতে পারিবেন।
দায়িত্ব ও কার্যাবলী -
(ক)  ট্রাস্ট-এর কার্যক্রম সার্বিকভাবে পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ;
(খ)  ট্রাস্ট-এর তহবিলের জন্য অর্থ সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিনিয়োগ এবং আয়মুখী প্রকল্পের পরিচালনা ;
(গ)  ট্রাস্ট-এর উদ্দেশ্য পূরণকল্পে কার্যক্রম গ্রহণের জন্য বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে অর্থায়ন;
(ঘ)  ট্রাস্ট-এর সকল স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ ও হেফাজতকরণ;
(ঙ) সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার কর্তৃক প্রদত্ত অনুদান, সরকারি অনুদান, ক্যাপিটেশন গ্রান্ট ও অন্যান্য উৎস হইতে অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে প্রয়োজনে সরকার ট্রাস্টি বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে বিভিন্ন সংস্থার সাথে যোগাযোগ, অর্থ প্রাপ্তির উদ্যোগ ও পদক্ষেপ গ্রহণ;
(চ) ট্রাস্ট-এর সার্বিক উন্নয়ণের লক্ষ্যে যুগোপযোগী কার্যক্রম গ্রহন করা;
(ছ) এতিম শিশুদের ভরণ পোষণ, শিক্ষা ও পুর্নবাসনের জন্য এতিমখানা প্রতিষ্ঠা এবং পরিচালনা করা;
(জ) ট্রাস্টের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের নিমিত্ত উন্নয়ন মূলক প্রকল্প গ্রহণসহ অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণ;
(ঝ)  ট্রাস্টের উদ্দেশ্যকে স¤প্রসারণের লক্ষ্যে যে কোন সরকারি বা বেসরকারি, দেশী-বিদেশী ও আন্তর্জাতিক সংস্থা বা সংগঠনের সহিত চুক্তি সম্পাদন ও সমন্বিত কর্মসূচি পরিচালনা;
(ঞ)  ট্রাস্টের তহবিল বৃদ্ধির নিমিত্ত বিনিয়োগ এবং আয় বর্ধকমূলক কর্মকান্ড
(ট) প্রতি ৩(তিন) মাস অন্তর ট্রাস্টি বোর্ড-এর সভা আহ্ববান করা তবে জরুরী প্রয়োজনে যে কোন সময়ে সভা করা  যাবে।
(ঠ) চেয়ারম্যান বোর্ড-এর সকল সভায় সভাপতিত্ব করিবেন, তবে তাহার অনুপস্থিতিতে বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান/ ভাইস চেয়ারম্যান সভায় সভাপতিত্ব করবেন। 
(ড)  সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের উপস্থিতিতে বোর্ড-এর সভার কোরাম গঠিত হবে, তবে মুলতবী সভার ক্ষেত্রে কোনো  কোরামের প্রয়োজন হবে না।
(ঢ)  সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।